গণিত বিষয়ে প্রয়োজনীয় টিপস্

Raisul Mushfeq Siddiki

পরীক্ষায় ভালো করতে গণিত বিষয়ে তোমাদের পূর্ণ প্রস্তুতি সম্পন্ন হতে হবে। তবু যে বিষয়গুলো মেনে চললে গণিতে নিশ্চিত ভালো করা সম্ভব সে বিষয়েই আলোচনা করছি।
    • প্রথমত, গণিতে ভালো করার প্রধান শর্ত হচ্ছে নিয়মিত অনুশীলন। অবশ্যই সঠিক নিয়মে যথাযথভাবে অঙ্কগুলো করতে হবে। অঙ্ক করতে গিয়ে খুব সাধারণ কিছু ভুল শিক্ষার্থীরা প্রায়ই করে থাকে। যেমন : বীজগণিতে +/- ভুল করা, প্রয়োজনীয় স্থানে বন্ধনী না দেওয়া, যথাযথ স্থানে একক ব্যবহার না করা ইত্যাদি। তাই অঙ্কে ভালো করতে চাইলে অনুশীলনের মাধ্যমে এ ভুলগুলো দূর করতেই হবে।
    • পরিমিতির অঙ্কে প্রয়োজনে চিত্র দেওয়া যেতে পারে। তবে সবক্ষেত্রে এটি বাধ্যতামূলক নয়। যেখানে চিত্র প্রয়োজন, সেখানে সঠিক চিত্রসহ প্রয়োজনীয় একক ব্যবহারে সতর্ক থেকে যথাযথভাবে অঙ্ক করবে। না হলে নম্বর কাটা যেতে পারে।
    • জ্যামিতির সম্পাদ্যের চিত্র নিখুঁত ও মাপে সঠিক হতে হবে। তবে উপপাদ্যের চিত্রও দৃষ্টিকটু হলে চলবে না। এখানে পেন্সিলটি কাটার দিয়ে সরু করে নেবে। জ্যামিতির উত্তর দেওয়ার সময় খাতার বাঁ পৃষ্ঠা থেকে লেখা শুরু করতে চেষ্টা করবে।
    • প্রতিটি প্রশ্নের উত্তর লেখা শেষ করে একটি সমাপ্ত রেখা টেনে পরবর্তী প্রশ্নের উত্তর শুরু করতে পার। যেসব অঙ্কে আলাদা উত্তর লেখা যায়, সেগুলো একটি ঘরের ভেতরে দেওয়া যেতে পারে।
    • নিয়মিত অনুশীলন করলে গণিতকে জটিল কিছু মনে হবে না। পরীক্ষার সময় প্রথমে বীজগণিত বা ত্রিকোণমিতি, এরপর পর্যায়ক্রমে পরিমিতি, উপপাদ্য, সম্পাদ্য এবং জ্যামিতির অনুশীলন উত্তর করবে।
    • সব প্রশ্নের যথাযথ উত্তর দেওয়ার সঙ্গে সঙ্গে অঙ্কে পূর্ণ নম্বর পেতে হলে অবশ্যই কাটাকাটি করা কমাতে হবে। যথাযথভাবে স্কয়ার চিহ্ন, = চিহ্ন এবং পরিমিতির অঙ্কে যথাস্থানে প্রায় এবং সঠিক একক (সে.মি. বা মিটার ইত্যাদি) অবশ্যই লিখতে হবে।
    • একটি পরিচ্ছন্ন খাতা ও সঠিকভাবে করা অঙ্ক অবশ্যই একজন পরীক্ষার্থীকে পূর্ণ নম্বরের নিশ্চয়তা দিতে পারে। যা তোমাকে A+ পেতে সাহায্য করবে।

About the Author

Raisul Mushfeq Siddiki / Author & Editor

I am currently a student. Living in Bangladesh

0 টি মন্তব্য:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন