কম্পিউটার শিক্ষা বিষয়ে প্রয়োজনীয় টিপস্

Raisul Mushfeq Siddiki

এসএসসি পরীক্ষার্থীরা, শুভেচ্ছা। কম্পিউটার শিক্ষা বিষয়ে মোট ১০০ নম্বরের পরীক্ষা। তত্ত্বীয় ৭০ নম্বর ও ব্যবহারিক ৩০। সুপ্রিয় এসএসসি পরীক্ষার্থীরা তোমাদের জন্যে শুভেচ্ছা রইল। একটু যত্নসহকারে প্রস্তুতি নিলে কম্পিউটার শিক্ষা বিষয়ে সহজেই তোমরা ভাল নম্বর পেতে পারো। ভাল নম্বর পাবার লক্ষ্যে তোমাদের কিছু প্রয়োজনীয় পরামর্শ দেওয়া হলো :

১.      কম্পিউটার শিক্ষা তত্ত্বীয় ও ব্যবহারিক দু’টি অংশ আছে। তত্ত্বীয় অংশে ৭০ ও ব্যবহারিক অংশে ৩০ নম্বর। তত্ত্বীয় অংশ আবার রচনামুলক ও নৈর্ব্যত্তিক দু’টি ভাগে বিভক্ত। মনে রাখতে হবে যে, প্রত্যেকটি ভাগের জন্যে তোমাদের আলাদাভাবে প্রস্তুতি নিতে হবে। নৈর্ব্যত্তিক অংশের জন্যে পাঠ্যবইয়ের প্রতিটি লাইন বারবার পড়া প্রয়োজন। পড়ার সময় অবশ্যই গুরুত্বপূর্ণ তথ্যের নিচে দাগ দিয়ে রাখবে।

২.      পরীক্ষায় উত্তর লেখার পূর্বেই প্রশ্ন নির্বাচন করে নিতে হবে। এটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ। যে প্রশ্নগুলোর উত্তর নির্ভুলভাবে জানা আছে, ওই প্রশ্নগুলোই নির্বাচন করতে হবে।

৩.      উত্তর লেখার সময় শিরোনাম দিতে হবে। উত্তরটি পয়েন্ট আকারে দিলে ভাল নম্বর পাওয়া নিশ্চিত হবে। উত্তরটি হবে সংক্ষিপ্ত তবে খেয়াল রাখতে হবে যাতে সব তথ্য অন্তর্ভুক্ত থাকে। উত্তরের ভাষা হবে সহজ, সরল ও প্রাঞ্জল। অবান্তর ও অপ্রয়োজনীয় অংশ বাদ দিতে হবে। প্রয়োজনীয় ক্ষেত্রে নির্ভুলভাবে চিত্র অঙ্কন করতে হবে।

৪.      উত্তর লেখার সময় অবশ্যই মানবণ্টনের দিকে খেয়াল রাখতে হবে। সব প্রশ্নের উত্তর দেবার চেষ্টা করতে হবে। তবে ভুল উত্তর দেওয়ার চেয়ে উত্তর না দেওয়া ভালো।

৫.      গাণিতিক সমস্যার উত্তর করলে পূর্ণ নম্বর পাওয়া সহজ হয়। তাই পরীক্ষায় যেসব প্রশ্নে গাণিতিক সমস্যা থাকবে, তার উত্তর দেওয়ার চেষ্টা করবে। যেমন- অধ্যায়-৪ (সংখ্যাপদ্ধতি ও কম্পিউটার লজিক)-এ অনেক গাণিতিক সমস্যা আছে। এ অধ্যায়টির সঠিক উত্তর লিখতে পারলে সম্পূর্ণ নম্বর পাওয়া সম্ভব হবে।

৬.      সংখ্যাপদ্ধতির অঙ্কগুলোয় ইংরেজি ও বাংলার মিশ্রণ করে থাকে অনেকেই। এ ধরনের মিশ্রণ না করা উচিত। বেস বা ভিত্তি লিখতে ভুল যেন না হয়, খেয়াল রাখবে। লজিক গেইটগুলোর প্রতীক সঠিকভাবে আঁকতে হবে।

৭.      প্রতিটি অধ্যায়ের অনুশীলনীর প্রশ্ন-উত্তরগুলোর সঙ্গে পাঠ্যবই পড়ে কী ধরনের প্রশ্ন হতে পারে সে সম্পর্কে আগে থেকে ধারণা রাখতে হবে।

৮.      পার্থক্য সংবলিত প্রশ্নের উত্তর দেওয়ার সময় খেয়াল রাখতে হবে, ২ নম্বরের জন্য চারটি পার্থক্যই যথেষ্ট।

৯.      গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্নগুলো বারবার রিভাইস করবে এবং গাণিতিক সমস্যাগুলো দ্রুত উত্তর করতে বারবার অনুশীলন করবে।

About the Author

Raisul Mushfeq Siddiki / Author & Editor

I am currently a student. Living in Bangladesh

0 টি মন্তব্য:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন